সোনাতলায় বসতবাড়িতে হামলা ও মারধরের ঘটনায় নারীসহ আহত-২

সোনাতলা প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সোনাতলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসতবাড়িতে হামলা ও মারধরের ঘটনায় নারীসহ দুইজন আহত। উপজেলার তেকানী চুকাইনগড় ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা দক্ষিনপাড়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। বর্তমানে আহতরা সোনাতলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহতরা হলো, গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস বেপারীর ছেলে বেল্লাল হোসেন ও মেয়ে পদভানু বেগম। এঘটনায় বেল্লালের মা রেজিয়া বেগম বাদি হয়ে তিন জনকে আসামি করে সোনাতলা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, উক্ত গ্রামের মোঃ গোলজার বেপারীর সাথে তাদের দির্ঘদিন যাবৎ পারিবারিক ছোটখাটো বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। তারই জেরধরে গত মঙ্গলবার সন্ধায় গোলজার বেপারী ও তার ছেলে শিপন আব্দুল কুদ্দুস এর বাড়িতে এসে অকথ্য ভাষায় গারিগালাজ শুরু করে। এসময় বাধা নিষেধ করলে শিপন ও তার পিতা গোলজার দেশীয় অস্ত্র ও লাটিসোঠা নিয়ে তাদের বাড়িতে এসে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে বেল্লাল ও তার বোন পদভানুকে বেদম মারধর করে পালিয়ে যায়। এতেকরে তারা গুরুতর আহত হলে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় সোনাতলা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে তার পরিবারের লোকজন। এদিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখাযায় গোলজার ও তার ছেলেনহ পরিবারের সকলেই গাঁঢাকা দিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে রয়েছে। এসময় স্থানীয় লোকজন জানান, গোলজারের ছেলে শিপন এলাকায় যাইচ্ছে তাই করে বেরাচ্ছে। সমাজের কোন রিতী-নিতীই সে মানেনা। মাঝেমধ্যেই সে এরুপ ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। কিছু বলতে গেলেই বিভিন হুমকী-ধামকী দেয় সে। তাই স্থানীয় প্রশাসনের নিকট এর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান এলাকার সুশীল সমাজের লোকজন।